আলুর তরকারি খেতে না চাওয়ায় স্বামীকে পি.টিয়ে হাসপাতালে পাঠাল স্ত্রী!

রাতে আলুর তরকারি রান্না করেছিলেন স্ত্রী। কিন্তু স্বামী তা খেতে চাননি, কারণ তাঁর ডায়াবিটিস রয়েছে। আলু খেতে নিষেধ করেছেন ডাক্তার। তবে সে সব কে শুনবে।

আলুর তরকারি খাবেন না বলার পরই নাকি স্বামীকে উত্তম মধ্যম খেতে হল স্ত্রীর হাতে। বেধড়ক পি.টুনি খেয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ব্যক্তি। গু.রুতর জ.খম হয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি। তাঁর কাঁধের হাড় ভেঙেছ।

এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের গুজরাটের আহমেদাবাদ শহরের ভাসনা এলাকায়।

নির্যাতনের শিকার হর্ষদ গোহেল (৪০) গু.রুতর জ.খম হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তার কাঁধের হাড় ভেঙে গেছে। এ ঘটনায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে তিনি থানায় অভিযোগ করেছেন।

সরাইনগরের বাসিন্দা হর্ষদ গোহেলের অভিযোগ, তার চারজন কন্যা রয়েছে। নিত্যদিন ঝগড়া বাঁধে তার স্ত্রীর সঙ্গে। শুক্রবার রাতে স্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করেন রাতে কী রান্না হয়েছে। স্ত্রী জানায়, তিনি আলুর তরকারি রান্না করেছেন। আর সঙ্গে রুটি।

মা.মলার অভিযোগে হর্ষদ লিখেছেন, আমি তখনই মানতে চাইনি। স্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করি আমার শরীরের জন্য আলু ভালো নয় জেনেও কেনো আলুর তরকারি রান্না করলে। এই কথা শুনতে আমার স্ত্রীর ভালো লাগেনি। এরপরই সে আমায় হেনস্থা করতে শুরু করে।

স্ত্রীর চেঁচামেচিতে জবাব দিতে গেলে বাথরুম থেকে সে একটি লাঠি নিয়ে এসে বেধড়ক মা.রধর করেন বলে অভিযোগ হর্ষদের। এ সময় প্রাণে বাঁচতে হর্ষদ চিৎকার করতে শুরু করলে তার পরিবার ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

গুরুতর জখম অবস্থায় এলিসব্রিজ এলাকায় ভিএস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় হর্ষদকে। তার ডান কাঁধের হাড় ভেঙে গেছে। এ ঘটনায় ভিএস হাসপাতালে একটি মেডিকো লিগ্যাল কেস ফাইল করা হয়েছে। পরে ভাসনা পুলিশ মারধর করা ও স্বামীকে হেনস্থা করার অভিযোগে ওই মহিলার বিরুদ্ধে মা.মলা দায়ের করেছে।

তথ্যসূত্র : এই সময়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *