শিক্ষার্থীকে নিয়ে প্রধান শিক্ষক উ’ধাও

নাটো’রের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর মরিয়ম মেমোরিয়াল বালি’কা উচ্চবিদ্যালয়ের এক এসএসসি শি’ক্ষার্থীকে (১৬) নিয়ে উ”ধাও হয়ে গে’ছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফি’রোজ আহমেদ। এই ঘটনায় শিক্ষার্থীর মা নাদিরা বেগম বা’দি হয়ে গুরুদাসপুর থানায় একটি অপ”হ”রণ মা”ম’লা করেছেন।

শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে এ ঘট’না ঘটে। শি’ক্ষক ফিরোজ আহমেদ উপজেলার না’জিরপুর গ্রামের মৃ”ত’ গোলা’ম মোস্তফার ছেলে। আর ওই শিক্ষার্থী একই উপজেলার মামদপুর গ্রামের সা’ইফুল ইসলামের মেয়ে।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদের সঙ্গে মু’ঠো’ফো’নে’ যোগাযোগ করা হলে, তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আ’ব্দুল মতি’ন ঘটনার স’ত্য”তা নিশ্চিত করে জা’নান,

ওই ছাত্রী শনিবার সকাল ১০টার দিকে ব্যব’হারিক পরী’ক্ষা দেওয়ার জন্য বি’দ্যালয়ে যায়। দুপুর ২টার দিকে সাইফুল ইসলাম তার মেয়ে বাড়ি না ফে’রায় বিদ্যালয়ে খোঁ”জ’ নিতে যান।

গিয়ে জানতে পারেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফি’রোজ আহম্মেদ তার মেয়েকে নিয়ে একটি মা’ই’ক্রো’বাসে চড়ে চলে গেছেন। পরে তিনি জা’নতে পারেন মেয়ে ও প্রধান শি’ক্ষক রা’জশাহীতে অবস্থা’ন করছেন।

শিক্ষকের স্বজনদের স’ঙ্গে রাজ’শাহীর ভ”দ্রা এলাকার একটি বাসায় যান চা’ত্রীর মা। এ সময় তার মেয়েকে নিয়ে আসার চে’ষ্টা করলে প্রধান শিক্ষক বা”ধা দেন। একপর্যায়ে থানা

 

পুলিশের কাছে গেলে, ওই সুযোগে প্রধান শিক্ষক তার মেয়েকে নিয়ে আবারও পালি’য়ে যান। ওসি আরও বলেন, এই ‘ঘ”টনায় রাতে গুরুদারপুর থানায় শিক্ষার্থীর মা নাদিরা বেগম বা”দি হয়ে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহম্মেদসহ তার তিন ভাইয়ের বি’রু’দ্ধে একটি অ’প’হ”রণ মা”’মলা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *